Breaking News
Home > স্বাস্থ্য তথ্য > আমার স্বামী ৫-১০ মিনিটের বেশি থাকতে পারে না, তাই আমি…..

আমার স্বামী ৫-১০ মিনিটের বেশি থাকতে পারে না, তাই আমি…..

আমি আমার স্বামীর সাথে যখন মিলন করি, তখন প্রায়ে সময় দেখা যায় আমার অনেক ইচ্ছা থাকা সর্তেও আমার কিছুই হয় না।
তবে এইটা সব সময় না। উল্লেখও যে, আমি আমার স্বামীর সাথে ৫ মিনিট থেকে ১০ মিনিট এর উপর মিলন করি তারপর ও আমার হয়না কিন্তু আমার স্বামীর হয়ে যায়। তাই, আমি অন্য ছেলের সাথে মেলামেশা করি। কারন, তার যৌন ক্ষমতা আমার স্বামীর থেকে অনেক বেশি। সমস্যাটা কি আমার না আমার স্বামীর বুঝতে পারছি না?
সমাধানঃ
সমস্যা কারো নয়। নারীদের অধিকাংশ সময়েই পুরুষদের থেকে দেরিতে orgasm হয়। পরাস্পরিক আলোচনা, স্বামীস্ত্রীর মাঝে সুসম্পরক, সেক্সের আগে পর্যাপ্ত foreplay করলে নারিও পেতে পারে orgasm. আপনি একজন স্ত্রীরোগ বিশেষজ্ঞের সাথে কথা বলে আরও অনেক কিছু জানতে পারবে।
যৌন মিলনে তৃপ্তি মেটে না ? জেনে নিন সমাধান
পুরুষের তুলনায় যৌন জীবনে নারীদের অসুখী হওয়ার হার অনেক বেশি। এমনকী নিজের ভালোবাসার পুরুষটির সঙ্গেও যৌন জীবন নিয়ে খুশি নন বহু নারী। মুখে প্রকাশ না করলেও মনের মধ্যে চাপা ক্ষোভ নিয়ে জীবন যাপন করেন টানা, মুখ ফুটে অনেকেই বলতে পারেন না যৌন জীবনে নিজের অতৃপ্তির কথা। কিন্তু এটা কেন? কেন বহু নারী রয়ে যান যৌন জীবনে অসুখী ও অতৃপ্ত?
১) ভুল ধারণা ও অজ্ঞতা: নারীদের যৌন জীবনে অসুখী রয়ে যাওয়ার মূল কারণ হচ্ছে পর্যাপ্ত যৌন শিক্ষার অভাব। যৌনতা যে কেবল সন্তান উৎপাদনের মাধ্যম নয়, নারী ও পুরুষ উভয়ের জন্যই একটি আনন্দের ব্যাপার, এই বিষয়টি সম্পর্কে আজও অজ্ঞ প্রচুর নারী। কী করতে হবে বা কীভাবে করলে আরও আনন্দময় হয়ে উঠবে যৌন মিলন, সেটা জানা নেই বলে তাঁরা রয়ে যান অসুখী ও অতৃপ্ত।
২) নিজেকে বুঝতে না পারা: আসলে কী চাইছেন, তার শরীর কোন জিনিসে কীভাবে সাড়া দিচ্ছে, কোন অঙ্গগুলো যৌনতার ক্ষেত্রে স্পর্শকাতর বা নিজের শরীরের চাহিদাগুলো কী কী ইত্যাদি বিষয়ে অজ্ঞতা বা বুঝতে না পারাও যৌন জীবনে অসুখী হবার একটি বড় কারণ।
৩) কী চান সেটা বলতে না পারা: নিজেকে বুঝতে পারেন, নিজের চাহিদাও জানেন, কিন্তু মুখ ফুটে বলতে পারছেন না নিজের ভালো লাগা না লাগার কথা। নারীদের যৌন জীবনে অতৃপ্ত থাকার অন্তরালে এটা একটি বিশাল কারণ। এমনকি তিনি যে যৌন জীবনে সুখী নন, এটাও পুরুষ সঙ্গীকে মুখ ফুটে বলতে পারেন না অনেক নারী।
৪) লজ্জা ও সংকোচ: অনেক নারীই মনে করেন যে মেয়েদের যৌনতার কথা বলতে নেই, কিংবা মেয়েদের যৌনতার বিষয়টি নিয়ে কথা বল বা যৌন চাহিদা প্রদর্শন করার বিষয়টি খুবই লজ্জার। তাই মনের ইচ্ছা মনেই চেপে রাখেন তাঁরা।
৫) পুরুষ সঙ্গীর স্বার্থপরতা: বেশিরভাগ পুরুষই নিজের সঙ্গিনীর যৌন চাহিদা পূরণের ব্যাপারে মনযোগী নন। বরং নিজের চাহিদা মিটে গেলেই তাঁরা স্বার্থপরের মত আচরণ করতে শুরু করেন। এটাও নারীদের অতৃপ্ত থাকার একটি বড় কারণ।
৬) অরগাজম সম্পর্কে ভুল ধারণা: অরগাজম বা চূড়ান্ত সুখ যে কেবল পুরুষের জন্য নয়। নারীরাও যে অরগাজম লাভ করতে পারেন এবং সেটা পুরুষদের মতই প্রত্যেক মিলনে, এই ব্যাপারটি জানেন না প্রচুর নারী। কীভাবে অরগাজম লাভ সম্ভব, কোন পজিশনে মিলিত হলে অরগাজম সহজে আসে ইত্যাদি বিষয়ে অজ্ঞতার কারণে নারীরা রয়ে যান অসুখী।
৭) শারীরিক-মানসিক সমস্যা নিয়ে সংকোচ: যৌনতায় আগ্রহ নেই বা যৌনতা ঘিরে কোন শারীরিক সমস্যা বোধ করছেন? এমন অবস্থায় ডাক্তারের কাছে যান না অধিকাংশ নারী। ফলে সামান্য একটু চিকিৎসার অভাবেই তাঁদের যৌন জীবন রয়ে যায় বিভীষিকাময়।
৮) যৌনতা ঘিরে ভয়: অনেক নারীর মাঝেই যৌনতা বিষয়ে নানান রকমের ভীতি কাজ করে। ফলে এই বিষয়টি সম্পর্কে তাঁরা কখনো সহজ মনোভাব পোষণ করতে পারেন না, চিরকাল বিষয়টি নিয়ে আড়ষ্টতা

Check Also

নারীদের যৌনাঙ্গের ভিতর আঙ্গুল দেয়া কি ঠিক?

মেয়েরা যৌনাঙ্গের ভিতর আঙ্গুল ঢুকিয়ে কামরস বের করলে কি কোনো প্রবলেম আছে? এবং বিয়ের পর হাসব্যান্ড কি এটা বুঝতে …